1. mahbubur2527@gmail.com : Mahbubur Rahman Sohel : Mahbubur Rahman Sohel
  2. saidur.yc@gmail.com : SAIDUR RAHMAN : SAIDUR RAHMAN
  3. jannatulakhi1123@gmail.com : Jannatul akhi Akhi : Jannatul akhi Akhi
  4. msibd24@gmail.com : Fazlul Karim : Fazlul Karim
  5. Mofazzalhossain8@gmail.com : Mofazzal Hossain : Mofazzal Hossain
  6. saidur.yc@hotmail.com : Saidur Rahman : SAIDUR RAHMAN
  7. jim42087070@gmail.com : Lokman Hossain : Lokman Hossain
  8. galib.ip2@gmail.com : Al Galib : Al Galib
  9. sikhanphd3@gmail.com : Shafiqul Islam : Shafiqul Islam
আজ ৬ই মে, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ সময় রাত ৩:২৮
শিরোনাম
ফৌজদারী মামলার আসামী ও সাংবাদিক নির্যাতনের দায়ে ওসডিতে থাকা ম্যাজিস্ট্রেট আছেন স্বপদে গ্রাম গঞ্জে বাড়ি করতে ইউনিয়ন পরিষদের অনুমতি লাগবে কুড়িগ্রাম প্রেস ক্লাব চালু করলো মানবিক হেল্প ডেস্ক আবারও সুন্দরবনের দাসের ভারানীর এলাকায় আগুন পাবনায় গাঁজাসহ তিন মাদক ব্যবসায়ী গ্রেফতার গৌরীপুরে শুভ্র হত্যার চার্জশীট দাখিল,পৌর-মেয়রসহ আসামী ১৯ জন ময়মনসিংহে জুয়া খেলার সময় ১৪ জন আটক। করোনাকালীন কর্মহীন অসহায় পরিবারের মাঝে প্রধানমন্ত্রীর ত্রাণ নিয়ে বাড়িতে বাড়িতে ছুটছেন নলছিটির ইউএনও! সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে সংবাদ প্রকাশের পর তারাকান্দায় বেতন পেল সেই অসহায় ঝালকাঠির নলছিটিতে অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদে অভিযান চালিয়েছেন উপজেলা প্রশাসন

প্রায় বিলুপ্তির পথে বাবুই পাখির বাসা

আহমেদ রুবেল শিবগঞ্জ (বগুড়া) প্রতিনিধি
  • আপডেটের সময় : শুক্রবার, আগস্ট ৭, ২০২০,
  • 117 দেখুন

দেশের নানাবিধ সৌন্দর্যের লীলাভূমি রয়েছে বগুড়া । তেমনি বগুড়া জেলার কালের আবর্তনে হারিয়ে যাচ্ছে তালের পাতায় ও নারিকেলের পাতায় মোড়ানো নিপুণ কারুকার্য বাবুই পাখির বাসা।

পরিবেশ বিপর্যয়ের কারণে বাবুই পাখির বাসা প্রায় বিলীন হতে চলেছে। ঘন বসতি বাড়ায় এবং অপরিকল্পিতভাবে গাছ পালা কেটে ফেলা বিশেষ করে তাল গাছ কাটার ফলে কমে আসছে বাবুই পাখির বসবাস। এতে বিপন্ন হচ্ছে এই শিল্পি পাখি বাবুই।

আজ থেকে প্রায় ২০-২২ বছর আগেও গ্রাম-গঞ্জের মাঠ-ঘাটের তাল গাছে দেখা যেত এদের বাসা।

বাবুই পাখির বাসা শুধু শৈল্পিক নিদর্শনই নয়, মানুষকে স্বাবলম্বী হতে উৎসাহিত করতো। তাইতো ছোট্ট বেলায় মুখস্থ পড়া সেই কবিতাটি কবি রজনী কান্ত সেনের ভাষায়,

বাবুই পাখিরে ডাকি বলিছে চড়াই,
কুঁড়ে ঘরে থেকে করো শিল্পের বড়াই।
আমি থাকি মহাসুখে অট্টালিকার পরে,
তুমি কত কষ্ট পাও রোদ, বৃষ্টি-ঝড়ে।

বিভিন্ন এলাকা ঘুরে দেখা যায়, ইউনিয়নসহ প্রায় সবগুলো ইউনিয়নে এখন আর আগের মতো চোখে পড়ে না বাবুই পাখি ও তার তৈরি দৃষ্টিনন্দন ছোট্ট বাসা তৈরির নৈসর্গিক দৃশ্য।

বাবুই পাখির নিখুঁত বুননে এ বাসা টেনেও ছেঁড়া কষ্টকর। প্রতিটি তালগাছে ৪০ থেকে ৯০টি বাসা তৈরি করতে সময় লাগে ১০-১২ দিন। খড়, কুটা, তালপাতা, ঝাউ ও কাশবন ও লতা-পাতা দিয়ে বাবুই পাখি উঁচু তালগাছে বাসা বাঁধে।

সেই বাসা দেখতে যেমন আকর্ষণীয়, তেমনি অনেক মজবুত। প্রবল ঝড়েও তাদের বাসা ভেঙে পড়ে না। পুরুষ বাবুই পাখি বাসা তৈরির পর সঙ্গী খুঁজতে যায় অন্য বাসায়।

সঙ্গী পছন্দ হলে স্ত্রী বাবুইকে সাথী বানানোর জন্য পুরুষ বাবুই নিজেকে আকর্ষণীয় করতে খাল, বিল ও ডোবার পানিতে গোসল করে গাছের ডালে ডালে নেচে বেড়ায়। চমৎকার বাসা বুনে বাস করায় এ পাখির পরিচিতি বিশ্বজোড়া।

বাবুই পাখির অন্যতম বৈশিষ্ট্য হলো- রাতের বেলায় ঘর আলোকিত করতে জোনাকি পোকা ধরে নিয়ে বাসায় রাখে এবং সকাল হলে ছেড়ে দেয়।

প্রজনন সময় ছাড়া অন্য সময় পুরুষ ও স্ত্রী বাবুই পাখির গায়ে পিঠে তামাটে কালো বর্ণের দাগ হয়। নিচের দিকে কোন দাগ থাকে না। ঠোঁট পুরো মোসাকার ও লেজ চৌকা।

তবে প্রজনন ঋতুতে পুরুষ পাখির রং হয় গাঢ় বাদামি। অন্য সময় পুরুষ ও স্ত্রী বাবুই পাখির পিঠের পালকের মতই বাদামি হয়।

০২ নং কিচক ইউনিয়নের মাটিয়ান গ্রামের অনেকে বলেন, আমাদের গ্রামে ছোটবেলায় দেখতাম রাস্তার দু’পাশে সারিবদ্ধভাবে দাঁড়িয়ে থাকা তাল গাছগুলোর মধ্যে অনেক বাবুই পাখির বাসা ছিলো।

কিন্তু এখন বাবুই পাখির বাসা আর দেখা যায় না। বাবুই পাখির বাসাটি আজ হারিয়ে যেতে বসেছে।

বিভিন্ন এলাকাজুড়ে বাবুই পাখি তালগাছে বাসা বাঁধতো কিন্তু এখন আর কোথাও এই বাবুই পাখির বাসা দেখা যায় না বললেই​ চলে।

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই বিভাগের আরও খবর

https://shadhinbangla16.com © All rights reserved © 2020

theme develop by shadhinbangla16.com
themesbazarshadinb16
bn Bengali
X