1. mahbubur2527@gmail.com : Mahbubur Rahman Sohel : Mahbubur Rahman Sohel
  2. saidur.yc@gmail.com : SAIDUR RAHMAN : SAIDUR RAHMAN
  3. jannatulakhi1123@gmail.com : Jannatul akhi Akhi : Jannatul akhi Akhi
  4. msibd24@gmail.com : Saiydul Islam : Saiydul Islam
  5. Mofazzalhossain8@gmail.com : Mofazzal Hossain : Mofazzal Hossain
  6. saidur.yc@hotmail.com : Saidur Rahman : SAIDUR RAHMAN
  7. jim42087070@gmail.com : Lokman Hossain : Lokman Hossain
  8. galib.ip2@gmail.com : Al Galib : Al Galib
  9. sikhanphd3@gmail.com : Shafiqul Islam : Shafiqul Islam
রংপুর ইসলামী ব্যাংক কমিউনিটি হাসপাতালে চিকিৎসার নামে প্রতারণা। - Shadhin Bangla 16
আজ ২৫শে অক্টোবর, ২০২০ খ্রিস্টাব্দ সময় সকাল ১১:০৬
শিরোনাম
ময়মনসিংহের ঈশ্বরগঞ্জে আজ মহাঅষ্টমী বৃষ্টির কারনে ভক্তসমাগম কম রাজাপুরে শ্রদ্ধেয় শাহ আলম স্যারের স্মরণসভা ও দোয়া অনুষ্ঠিত ময়মনসিংহের গৌরীপুরে চেয়ারম্যানের নির্দেশেই কুপিয়ে হত‍্যা করা হয় মৌলভীবাজারে মসজিদভিত্তিক শিশু ও গণশিক্ষার প্রশিক্ষণ কর্মশালার উদ্বোধন রাজনগরে পূজা মন্ডপের নিরাপত্তায় প্রতিরক্ষা বাহিনী মোতায়েন ময়মনসিংহের ঈশ্বরগঞ্জে তেলের জন‍্য জ্যান্ত ডলফিনকে কেটে টুকরো করা হয়। বাগেরহাটের শরণখোলায় মুক্তিযোদ্ধা এমএ কাদেরকে রাষ্ট্রীয় মর্যাদায় দাফন। সন্তানের ঘটানো শ্লীলতাহানি ঢাকতে মাদ্রাসা পরিচালকের বিরুদ্ধে কুরুচিপুর্ণ অভিযোগ বাবার। ‘রাবি শিক্ষার্থীর নৃশংস হত্যার দ্রুত বিচার না হলে কঠোর আন্দোলন’ মানববন্ধনে শিক্ষার্থীরা। গলাচিপায় বিভিন্ন পূজা মন্ডপে প্রশাসনের মাস্ক বিতরণ

রংপুর ইসলামী ব্যাংক কমিউনিটি হাসপাতালে চিকিৎসার নামে প্রতারণা।

এম এইচ রনি, নীলফামারী জেলা প্রতিনিধি
  • আপডেটের সময় : বুধবার, আগস্ট ৫, ২০২০,
  • 71 দেখুন
117106212 1080954395640279 2026936527905672939 n রংপুর ইসলামী ব্যাংক কমিউনিটি হাসপাতালে চিকিৎসার নামে প্রতারণা।

রংপুর ইসলামী ব্যাংক কমিউনিটি হাসপাতাল চিকিৎসার নামে সাধারণ রোগীদের সঙ্গে প্রতারণা করার অভিযোগ উঠেছে।এমন অভিযোগ করেন ভুক্তভোগী রোগী ও তাহার পরিবার। সাম্প্রতিক ওই হাসপাতালে চিকিৎসা নিতে যাওয়া একজন রোগীর সঙ্গে চিকিৎসার নামে প্রতারণা করা হয়েছে বলে,ভুক্তভোগী সেই রোগী অভিযোগ করেন।

ভুক্তভোগী রোগী বলেন,গত ২৫ জুলাই রংপুর ইসলামী ব্যাংক কমিউনিটি হাসপাতালে প্রচন্ড কোমর ব্যথা নিয়ে ওই হাসপাতালে ভর্তি হয়।রোগীর নাম মো.জাকারিয়া হাসান জাকির।সে এতো অসুস্থ যে হাঁটা চলা করতে পারেনা।বিছানায় শুয়ে থাকতে হয়।প্রস্রাব পায়খানা বিছানায় শুয়ে করতে হয়।

সেই রোগী কে হাসপাতালের দ্বিতীয় তলার ২০৩ নং কেবিনে ভর্তি রাখা হয়।কেবিনে রোগী কোমরের ব্যথায় ছটফট করে ডাক্তারা বলেন তার অপারেশন করতে হবে।তার অপারেশন করবেন ডাক্তার হাবিবুর রহমান।রোগীর নাম আর ডাক্তারের নাম লিখে হাসপাতালের অভ্যর্থনা বোর্ডে ঝুলিয়ে রাখা হয়।

রোগীর করোনাভাইরাসের টেস্ট করার পরে ডাক্তার চিকিৎসা দিবে।রোগীর করোনা পরীক্ষা করা হয়। রিপোর্ট নেগেটিভ আসে।এম আর আই রিপোর্ট থাকার পরেও আবারও এম আর আই,এক্সে করানোসহ বেশ কয়েকটি টেস্ট করানো হয়।রোগীদের বিভিন্ন টেস্টে সব মিলিয়ে ১০/১২হাজার টাকা খরচ হয়।

রোগীর বিভিন্ন টেস্ট করাতে হাসপাতালের দ্বিতীয় তলার সিড়ি দিয়ে ওঠানামা করতে রোগীর পরিবারকে দারুণ দুর্ভোগের মধ্যে পড়তে হয়েছে।হাসপাতালে সিড়ি ছাড়া আর কোন ব্যবস্থা না থাকায়,অসুস্থ রোগীকে নিয়ে দ্বিতীয় তলায় ওঠানামা করতে দারুণ দুর্ভোগের শিকার হতে হয় তাদের।

এরপরও রোগীকে এ টেষ্ট সে টেষ্ট দিয়ে সময় কালক্ষেপণ করতে থাকে হাসপাতালের ডাক্তাররা।এই ভাবে চলে আট দিন।হঠাৎ হাবিবুর রহমান নামে একজন ডাক্তার এসে রোগীকে ও তার সঙ্গে থাকা আত্বীয়দের বলেন,ঈদুল আজহার পর আগস্টের ৪ তারিখে তার অপারেশন করবেন।সেইদিন ডাক্তার ১০০০ টাকা ভিজিটও নিয়েছে।

৩ আগষ্ট রোগীর আত্বীয়রা ডাক্তার হাবিবুর রহমানের সাথে মোবাইল ফোনে যোগাযোগ করেন।তখন ডাক্তার ফোনে বলেন তোমরা এখনও বাড়ি যাওনি।ডাক্তারের কথা শুনে রোগী ও রোগীর আত্মীয় স্বজনের মাথায় আকাশ ভেঙ্গে পড়ে।এদিকে রোগীকে অপারেশন কথা বলে ১১দিন কেবিনে রাখা হয়।

এখানে চিকিৎসার নামে শুধু কেবিন ভাড়া বাড়াচ্ছে।তাই রোগী হাসপাতালের কেবিন ভাড়া বাবদ ৪ আগস্ট পর্যন্ত প্রায়১৪০০০/ হাজার টাকার মতো বিল হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ কে দিতে হয়েছে।রোগীর সঙ্গে এতো বড় প্রতারণা করার পরও হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ কোন ধরনের ব্যবস্থা গ্রহণ করে নি।

এদিকে রোগীর হাসপাতালে ভর্তি হওয়া থেকে শুরু করে বিভিন্ন টেষ্টসহ সব মিলে ৩০,০০০/হাজার টাকার বেশী খরচ হয়েছে।অথচ রোগী জাকারিয়া হাসান জাকিরের কোমরের অপারেশন চিকিৎসা কিছুই হয়নি।সে কোমরের ব্যথা নিয়ে বাড়ি ফিরেছে।হাসপাতাল ও ডাক্তার যে তাদের সঙ্গে প্রতারণা করেছে।

এই প্রতারণার বিচারের দাবি করেন রোগী ও তার আত্বীয় স্বজন। এব্যাপারে ইসলামী ব্যাংক কমিউনিটি হাসপাতালের ব্যবস্থাপনা পরিচালক ডাঃ মোঃ আজহার আলী শাহ’র সঙ্গে মুঠোফোনে যোগাযোগ করা হলে তাহাকে ফোনে পাওয়া যায়নি।

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই বিভাগের আরও খবর

https://shadhinbangla16.com © All rights reserved © 2020

theme develop by shadhinbangla16.com
themesbazarshadinb16
bn Bengali
X